কেন গ্রামীণ স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে ভাবনা ?

যখনি আমরা “সবার জন্যে স্বাস্থ্য” নিয়ে ভাববো , প্রথমেই নজর দিতে হবে আমাদের অপেক্ষাকৃত দুর্বল দিকগুলোর দিকে।বাংলাদেশের গ্রামীণ জনসংখ্যা মোট জনসংখ্যার শতকরা ৬২.৬ ভাগ। তার মানে অর্ধেকের অনেক বেশি গ্রামীণ জনগোষ্ঠী নিয়ে আমাদের পথ চলা। এই পথ চলা কে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রাথমিক যোগ্যতা হলো এই জনগোষ্ঠীকে সুস্থ সবল রাখা।

সুস্থ ও স্বাস্থ্যবান মানুষ অধিক উৎপাদনশীল – সামাজিক অর্থনীতিতে যার প্রভাব অনেক ব্যাপক। আবার পারিবারিক অর্থনীতিতে স্বাস্থ্যের পেছনে ব্যয় কম হলে সেই অর্থ ভবিষ্যৎ স্বাস্থ্যের জন্য সঞ্চয় না করে অন্য খাতে ব্যয় করতে পারেন যা কিনা জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে সহায়ক এবং একই সাথে বৃহত্তর অর্থনীতিতে অর্থের প্রবাহ বৃদ্ধি করে।

শিশু মৃত্যুর হার আমরা কমাতে সক্ষম হয়েছি,কিন্তু এখন চ্যালেঞ্জ শক্তিশালী ও মেধাবী মানুষ হিসেবে এই শিশুদের গড়ে তোলা।

উপরোক্ত বিষয়গুলো পর্যালোচনা করলে এটাই প্রতীয়মান হয়, কম খরচে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা একটি অতীব জরুরি একটা বিষয় এবং গ্রামীণ এলাকায় তা অতি গুরুত্বপূর্ণ।

3 thoughts on “কেন গ্রামীণ স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে ভাবনা ?

  1. প্রান্তিক এলাকায় কম খরচে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার লক্ষ্যে হাসিখুশি কী ধরণের পদক্ষেপ নিচ্ছে/নিবে?

    Like

    1. Please go through my next writing.we expect more queries like this.it will help us in continuous improvement.

      Like

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: